#

প্রিন্সিপাল থেকে বার্তা




#

একজন কারিগরি শিক্ষক হিসেবে আমি আমার হৃদয়ে দুটো শ্লোগানকে ধারন করি এবং সেগুলো বাস্তবায়নের জন্য চেষ্টা করে থাকি । শ্লোগান দুটো হলো (ক) কারিগরি শিক্ষা নিলে, বিশ্বজুড়ে কর্ম মিলে (খ) কারিগরি শিক্ষা নিন, বদলে যাবে আপনার দিন। কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষা ব্যতীত বাংলাদেশের অর্থনৈতিক উন্নয়ন অসম্ভব । শিল্পোন্নত দেশ যেমন জার্মানি,জাপান,চীন,তাইওয়ান, সিঙ্গাপুর, মালয়েশিয়া ইত্যাদির উন্নয়নের মুলে রয়েছে শিল্প-কারখানা গড়ে তোলা এবং দেশের যুব সমাজকে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষার মাধ্যমে দক্ষ মানব সম্পদে রূপান্তরিত করা। চীনে ১২ বছর বিশ্ববিদ্যালয় বন্ধ রেখে যুব সমাজকে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষায় শিক্ষিত করে এবং ঘরে ঘরে শিল্প কারখানা গড়ে তুলে আজ তারা বিশ্বের অর্থনৈতিক পরাশক্তিতে পরিনত হয়েছে। আমাদের দেশে প্রতি বৎসর প্রায় বাইশ লক্ষ যুবক-যুবতী শ্রম বাজারে প্রবেশ করে। কিন্তু দূর্ভাগ্যজনক যে, শিল্প কারখানা্র উপযোগী দক্ষতা না থাকার কারনে (Skill Gap) এই কর্মক্ষম ও সম্ভাবনাময় যুবশক্তি উপযুক্ত কর্মসংস্থানের সুযোগ পাচ্ছেনা্। বর্তমান সরকারের আমলে বাংলাদেশে ১০০ টি অর্থনৈতিক অঞ্চল প্রতিষ্ঠার কাজ শুরু হয়ে গেছে। ঐ অঞ্চল সমূহে লক্ষাধিক শিল্প কারখানা স্থাপিত হবে এবং ঐ সব শিল্প কারখানায় আমার জানা মতে প্রায় এক কোটি সাতাশ লক্ষ লোকের কর্মসংস্থান হবে। আর ঐ সব শিল্প কারখানার উৎপাদন শাখায় সিংহভাগই কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষায় শিক্ষিত ও দক্ষ জনশক্তির প্রয়োজন হবে। আমাদের দেশের যুবক যুবতীরা যদি কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষায় শিক্ষিত হয়ে নিজেকে দক্ষ মানব সম্পদে রূপান্তরিত করতে পারে তবে তারা দেশে-বিদেশে কর্মসংস্থানের সুযোগ পাবে, আত্নকর্মসংস্থানের মাধ্যমেও নিজেকে প্রতিষ্ঠিত করতে পারবে এবং বেকারত্বের অভিশাপ থেকে মুক্তি পাবে। তাই এদেশের জনগনের প্রতি আমার বিনীত অনুরোধ, আপনাদের সন্তানদের সাধারন শিক্ষায় শিক্ষিত করে বেকার তৈরীর পরিবর্তে কারিগরি ও বৃত্তিমূলক শিক্ষায় শিক্ষিত করুন, তাদেরকে দক্ষ মানব সম্পদ হিসেবে গড়ে তুলুন এবং দেশের আর্থ-সামাজিক অবস্থার উন্নয়ন সাধনে কার্যকর ভূমিকা পালন করুন।

Engr. MD. Abul Kalam Azad
Principal
Sherpur Technical School & College.